নগদ একাউন্ট কোড | নগদ একাউন্ট দেখবেন যেভাবে

নগদ একাউন্ট কোড হচ্ছে *১৬৭#:- বর্তমান এই যুগে সবকিছু ডিজিটালি হয়ে যাচ্ছে। এখন আমরা অনেকেই মার্কেটিং করি ডিজিটালভাবে অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে। তাছাড়া এখন আবার আর্থিক সুবিধাটাও আমরা অনলাইনের মাধ্যমে পেয়ে যাচ্ছি ডিজিটালি ভাবে।

নগদ একাউন্ট কোড


বর্তমান সময়ে আর্থিক লেনদেনের সুবিধাটা আমরা অনলাইনের মাধ্যমে পেয়ে যাচ্ছি। অনেকেই আবার ব্যাংকিং হিসেবে ব্যবহার করে আবার অনেকেই মোবাইল ব্যাংকিং। বর্তমান বাংলাদেশের মধ্যে বেশ কয়েকটা মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেমন নগদ, রকেট, বিকাশ ইত্যাদি।

আজকের এই নিবন্ধটি মোবাইল ব্যাংকিং এর অন্যতম একটা প্রতিষ্ঠান নগদ সম্পর্কে লেখা হয়েছে। আজকের এই নিবন্ধ থেকে আপনি ‌nagad code জেনে নেওয়ার পরে নগদ এর বিভিন্ন সেবা যেমন সেন্ড মানি, ক্যাশ আউট, পেমেন্ট এবং ব্যালেন্স চেক সহ বিভিন্ন সেবা উপভোগ করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ পাসপোর্ট দিয়ে কি বিকাশ একাউন্ট খোলা যায় | জন্ম নিবন্ধন দিয়ে কি বিকাশ একাউন্ট খোলা যায়

সুতরাং আপনি যদি একজন নগদের গ্রাহক হয়ে থাকেন তাহলে খুব ভালোভাবে আপনার একাউন্টটা ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই আপনার সেই কোডটা লাগবে যেটা কিনা ‌নগদ একাউন্ট কোড কিংবা nagad USSD code নামে পরিচিত।

what is Nagad?

নগদ হচ্ছে বাংলাদেশের সরকারি ডাক বিভাগের একটি ডিজিটাল লেনদেন সেবা। বর্তমান সময়ে এই ডিজিটালি আর্থিক লেনদেন চালু হওয়ার পর লোকজন অনেক সুবিধা ভোগ করতেছে। ধনী থেকে গরিব এখন প্রায় প্রত্যেক শ্রেণীর লোকের এই সমস্ত একাউন্ট রয়েছে।

যেহেতু যেকোনো সময় যে কোন জায়গাতে বসে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে লেনদেন করতে পারতেছেন তাই হয়তো এর গ্রাহক বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাছাড়া নগদের অ্যাকাউন্ট কোড ‌ ব্যবহার করে কিংবা ইউএসএসডি কোড ব্যবহার করে অনেক সহজে ইউজ করা যায় এই অ্যাকাউন্টটি।

প্রত্যেক গ্রাহক তাদের যেকোন লেনদেন যেকোনো সময় বাড়িতে বসেই করতে পারে। বলতে গেলে খুব প্রয়োজনীয় একটা অ্যাকাউন্ট বর্তমান সময়ের জন্য। আমাদের যদি কেউ টাকা পাঠাতে চাই আমরা নগদ নাম্বারটা দিতে পারি একদম সহজ তাই না?

আরো পড়ুনঃ শিওর ক্যাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

মূলত নগদ অ্যাকাউন্ট হচ্ছে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের একটি ডিজিটালিই আর্থিক লেনদেনের সুবিধাদাতা প্রতিষ্ঠান। যার মাধ্যমে বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের মধ্যে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় খুব দ্রুত টাকা পাঠানো সম্ভব।

আপনি চাইলে নগদ একাউন্টের মাধ্যমে অন্য কারো নগদ একাউন্টে টাকা পাঠাতে পারবেন যেটাকে সেন্ড মানি বলা হয়, ক্যাশ আউট করতে পারবেন, 3বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পেমেন্ট করতে পারবেন, বিভিন্ন অফারসহ মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন ইত্যাদি।

নগদ একাউন্ট কোড‌ কি?

নগদ একাউন্ট কোড হচ্ছে এমন একটা কোড যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজে আপনার নগদ একাউন্টে পরিচালনা করতে পারবেন। আপনি চাইলে এই কোডের মাধ্যমে সেন্ড মানি থেকে শুরু করে ক্যাশ আউট পর্যন্ত করতে পারবেন। তাছাড়াও এই কোডটি ডায়াল করে আপনার একাউন্টে ব্যালেন্স কত টাকা রয়েছে সেটাও দেখতে পারবেন এবং আরও অনেক কিছু।

এখন আবার অনেকেরই প্রশ্ন জাগতে পারে নগদ একাউন্টের সেই কোডটা কোনটা? প্রিয় পাঠক বন্ধুরা, চিন্তার কোন কারণ নেই এই কোডটা নিয়ে। কেননা মূলত আজকের এই নিবন্ধটি সেই রিলেটেড যেটা কিনা আপনি চিন্তা করছেন।

আপনি যখন আস্তে আস্তে আর্টিকেলটা পড়ে পড়ে নিচের দিকে যাবেন ঠিক তখনই আপনি এই বিষয়টা জানতে পারবেন। তাই অবশ্যই মনের সহকারে পড়ার চেষ্টা করবেন বলতে গেলে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি নিবন্ধ।

নগদ একাউন্ট কোডের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু?

এখন আবার অনেকেরই প্রশ্ন রাখতে পারে যে, আমি যে আজকের এই আর্টিকেলটি পড়বো এবং পড়ার বিনিময়ে কোডটা জানবো তাহলে আমার উপকার কি হবে? আমি যদি আপনাদের সাথে উপকারের কথা শেয়ার করতে চাই তাহলে অনেকগুলো বলতে পারবে।

তবে এখানে বেশ কয়েকটা প্রয়োজনীয়তা এবং উপকার সম্পর্কে আপনাদের সাথে শেয়ার করার চেষ্টা করব যেগুলো কিনা আপনাদের কাজে লাগতে পারে এবং নগদ সম্পর্কে ধারণা আসবে আশা করি। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে সে বিষয়টাও জেনে নিয়া যাক।

আপনি যদি একজন মোবাইল ব্যাংকিং গ্রাফ হয়ে থাকেন সেটা হোক নগদ, বিকাশ কিংবা রকেট ইত্যাদি। অবশ্যই আপনি একটা বিষয় শুনেছেন হয়তো যে এই ব্যাংকিং সেবাগুলো ব্যবহার করার জন্য একটা নির্দিষ্ট ইউএসএসডি কোড রয়েছে।

ঠিক তেমনি একটা নির্দিষ্ট ইউএসএসডি কোড রয়েছে নগদ ব্যবহারকারীদের জন্য। প্রয়োজনে বলতে আমরা যদি একজন বাটন ফোন ব্যবহারকারী হয়ে থাকি অর্থাৎ আমাদের কাছে যদি স্মার্টফোন না থাকে তাহলে অবশ্যই নগদ ব্যবহার করার জন্য সেই ইউএসএসডি কোড লাগবে।

আরো পড়ুনঃ রকেট কোড কত | rocket code koto

কেননা ইউএসএসডি কোড ব্যতীত নগদ একাউন্ট ব্যবহার করার জন্য অন্য আর যে মাধ্যম রয়েছে সেটা হচ্ছে অ্যাপ্লিকেশন। অর্থাৎ নগদের যে অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে সেটা ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই আপনার স্মার্টফোন থাকা লাগবে। সুতরাং আপনার যদি স্মার্টফোন না থাকে তাহলে অবশ্যই নগদ একাউন্ট কোডের প্রয়োজন পড়বে।

তাছাড়া আর একটা প্রয়োজনীয়তা হচ্ছে এখনো পর্যন্ত আশা করি নগদের যে অ্যাপ্লিকেশন টা রয়েছে সেটা ব্যবহার করার জন্য ইন্টারনেট কানেকশনের প্রয়োজন পড়ে। সুতরাং কম্পিউটার আমরা সকলেই জানি সাধারণত ইন্টারনেট কানেকশন আমরা স্মার্টফোনেই পেয়ে থাকি।

যদিওবা অনেক ক্ষেত্রেই বাটন শুনেও ইন্টারনেট পাওয়া যায় তবে নগদ অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করার জন্য যতটুকু ইন্টারনেট প্রয়োজন সেটা পাওয়া যায় না আমার মতে। তো আপনার ইউএসএসডি কোড প্রয়োজনের জায়গা অন্যতম হচ্ছে এটি।

আপনার স্মার্ট ফোন আছে ঠিক আছে কিন্তু যদি ইন্টারনেট কানেকশন না থাকে তাহলে অবশ্যই ইউএসএসডি কোড এর প্রয়োজন পড়বে যা যা কিনা নগদ একাউন্ট কোড নামেও পরিচিত। তো আপনি যদি সেই করতে সম্পর্কে আরও বিস্তারিতভাবে জানতে চান তাহলে অবশ্যই আর্টিকেলটা শেষ পর্যন্ত পড়ার চেষ্টা করবেন।

">নগদ একাউন্ট কোড | Nagad account code

নগদ একাউন্ট করতে হলো *১৬৭# আপনার যেকোনো প্রয়োজনে এই কোড টি ডায়াল করতে পারেন নগদ ব্যবহারকারী হয়ে থাকলে। আপনি চাইলে এই ‌nagad account code ইউজ করার মাধ্যমে আপনার ব্যালেন্স চেক, ইত্যাদি সহ আরো অনেক কিছু করতে পারবেন।

নগদ একাউন্ট দেখবেন যেভাবে

আপনি যদি আপনার সিমের মধ্যে নগদ অ্যাকাউন্ট আছে কিনা চেক করতে চান তাহলে আপনার সেই সিম থেকে ডায়াল করুন *১৬৭# এই কোডটি ডায়াল করার পরে হয়তো আপনাকে নতুন একাউন্ট খুলতে বলবে কিংবা নগদের মেনু শো করবে।

যদি কোডটি ডায়াল করার পরে নগদের বিভিন্ন মেনু শো করে তাহলে বুঝবেন আপনার সেই নাম্বারের মধ্যে নগদ একাউন্ট রয়েছে। যদি আপনাকে নতুন একাউন্ট খোলার জন্য বলা হয় তাহলে বুঝবেন আগে থেকেই আপনার সিমের মধ্যে একাউন্ট নেই, খোলার প্রয়োজন পড়বে।

আরো পড়ুনঃ নগদ একাউন্ট দেখার কোড | নগদ উপবৃত্তির টাকা দেখার নিয়ম

তাছাড়া আপনি উপরের কোড টি ডায়াল করার পরে আপনার নগদের প্রায় সমস্ত কাজ কমপ্লিট করতে হবে। আশা করি জানতে পেরেছেন কিভাবে নগদ একাউন্ট ব্যবহার করতে হয় কোন কোড ডায়াল করার মাধ্যমে।

উপসংহারঃ আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে নগদ একাউন্ট কোড সম্পর্কে বলার চেষ্টা করেছি। আশা করি অনেক উপকৃত হয়েছেন যদি ভুল হয় তাহলে সংশোধনের জন্য আবেদন করবেন ধন্যবাদ।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url