Advertise

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান | জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার নিয়ম

আপনি কি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র কিভাবে অনুসন্ধান করবেন এটা নিয়ে চিন্তিত? তাহলে আজকের এই আর্টিকেলে আপনাকে সুস্বাগতম। কেননা আজকে এই আর্টিকেলটি মূলত জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান করবে তাদেরকে নিয়েই লেখা হয়েছে। তাই আপনি যদি একজন বাংলাদেশের নাগরিক হয়ে থাকেন এবং কিভাবে আপনার এনআইডি কার্ড অনুসন্ধান করবে এটা না জেনে থাকেন তাহলে আর্টিকেল কি শেষ পর্যন্ত পড়েন। কেননা আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে বিস্তারিত ভাবে শেয়ার করার চেষ্টা করবো এই বিষয় সর্ম্পকে।

আজকের এই আপনার প্রিয় ওয়েবসাইট থেকেই এই আর্টিকেলে জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর,জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড,জাতীয় পরিচয় পত্র চেক করার নিয়ম,জাতীয় পরিচয় পত্র pdf,জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার নিয়ম ইত্যাদি বিষয় সম্পর্কে এই ওয়েবসাইটে বর্ণনা করা হবে ইনশাআল্লাহ। তাহলে আর দেরি কেন এখন থেকেই পড়া শুরু করে দিন আজকের এই নিবন্ধটি।

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান


আরো পড়ুনঃ

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান করার নিয়ম

আপনি যদি একজন বাংলাদেশের রিপোর্টার হয়ে থাকেন খুব সহজেই আপনি এবং খুব দ্রুত আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ড অনুসন্ধান করতে পারবেন। তার জন্য আপনি বাংলাদেশের অফিসিয়ালি ন্যাশনাল আইডি কার্ড ওয়েবসাইটে গিয়ে খুব দ্রুত অনুসন্ধান করে নিতে পারবেন। তার একটি উপকার হচ্ছে আমাদের দেশ কিংবা বিদেশে অনেক অপরাধে জড়িত রয়েছে অনেক ব্যক্তি সেই খারাপ লোক গুলো আপনার এন্ড্রয়েডের কোন ক্ষতি কিনে ব্যবহার করছে কিনা তাও দেখতে পাবেন আশা করি। তাছাড়া অনেক সময় দেখা যায় আমরা যখন একটা সিম কিনা জন্য সিম কোম্পানির এজেন্ট গুলোর কাছে যায় তখন তারা চুরি করে আমাদের থেকে কয়েকটা সিম রেজিস্ট্রেশন করে নেয় যেটা কিনা আমরা ধরতে পারি না অনেক সময়। তাই আপনি সেটা উচ্ছেদ করতে পারবেন অর্থাৎ আপনার এনআইডি কার্ড দিয়ে কয়টা সিম রেজিস্ট্রেশন করা রয়েছে।

অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান

বর্তমানে আমরা অনেক সময় দেখতে পাই যে অনেক ভালো লোকও খুব দ্রুত অপরাধের দিকে জড়িত হয়ে যাচ্ছে। তাই আপনার আইডি কার্ডটি কি সেই অপরাধ জগতে ব্যবহার হচ্ছে? এইসব বিষয় সম্পর্কে আপনার অক্ষমতা সচেতন হওয়া প্রয়োজন। কেননা অনেক সময় অপরাধ করবে অন্যজন কিন্তু শাস্তি পেতে হবে আপনাকে। তাই আপনি যদি আজকের ন্যাশনাল আইডি কার্ড কিংবা ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে চান তাহলে শুধুমাত্র আপনার স্মার্ট ফোন, ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার দিয়ে খুব সহজেই চেক করতে পারবেন। তার জন্য আপনাকে অবশ্যই অফিশিয়ালি সরকারি ওয়েবসাইট ভিজিট করতে হবে আপনার মোবাইল ফোন,কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ থেকে।

জাতীয় পরিচয় পত্র কিভাবে চেক করতে হয় 2022 | জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান

আপনি কি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র খুব দ্রুত অনুসন্ধান করতে চান? যদি করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই কয়েকটি ধাপ সম্পন্ন করতে হবে। এই গানগুলো যদি আপনি ভালভাবে এই ওয়েবসাইট থেকে অনুসরণ করে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরু করেন‌। তাহলে আমি আশা করি আপনি আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের যাবতীয় তথ্য কিংবা অন্যান্য আরো কিছু অনুসন্ধান করতে পারবেন।

  • সর্বপ্রথম আপনার স্মার্ট ফোন, ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার থেকে কোন একটা ব্রাউজার ওপেন করতে হবে। তার জন্য অবশ্যই আপনার ফোনে ওয়াইফাই কিংবা মেগাবাইট থাকতে হবে।
  • কোন একটা ব্রাউজার ওপেন করার পর আপনাকে ভিজিট করতে হবে nidw.gov.bd অর্থাৎ আপনাকে এই সরকার ওয়েব সাইটটি ভিজিট করার পর এখানে প্রবেশ করতে হবে।
  • এই ওয়েবসাইটটিতে প্রবেশ করার পর প্রথম বক্সে আপনার রেজিস্ট্রেশন ফরমের স্লিপের নাম্বারটি টাইপ করতে হবে কিংবা প্রবেশ করাতে হবে।
  • এবং দ্বিতীয় বক্সে আপনার জন্ম তারিখটি জন্ম সাল এবং মাস সহ ইত্যাদি সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে।
  • এবং সর্বশেষে আপনাকে একটি ক্যাপচা পূরণ করতে হবে। হৎস্টার এখানে ক্যাপচা বলতে আপনাকে একদম সর্বশেষ নিচে যে বক্সটি রয়েছে সেই বক্সটিতে বক্সের উপরে দেওয়া সংখ্যাটি টাইপ করতে হবে।

উপরে দেওয়া সমস্ত ধাপ গুলো অনুসরণ করার পর আপনার সামনে আপনার এনআইডি কার্ডের নাম্বারটা চলে আসবে। তুমি যদি এনআইডি কার্ডের নাম্বার টি চলে আসে তাহলে নিচের দেওয়া বাকি ধাপগুলো অনুসরণ করুন আপনার এনআইডি কার্ডের তথ্য অনলাইনে দেখার জন্য।

  • আপনি যদি আপনার এনআইডি রেজিস্ট্রেশন সম্পূর্ণভাবে কমপ্লিট করতে চান তাহলে এই ওয়েব সাইটটি ভিজিট করুন https://services.nidw.gov.bd/registration
  • এবং আপনার এনআইডি নাম্বার,জন্ম তারিখ, ফোন নাম্বার ইত্যাদি সহ আরো নানা প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করার পর নিবন্ধন করুন।
  • রেস্তরেশন যখন সম্পূর্ণ হয়ে যাবে তখন আপনাকে সেই ওয়েবসাইটটিতে যেতে হবে এবং লগইন করতে হবে।
  • আপনি আপনার অ্যাকাউন্টে লগইন করার পর আপনি "পরিচয় বিবৃতি" নামে একটি অপশন পাবেন সেখানে ক্লিক করে আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের অনলাইন ফটোকপি কিংবা অস্থায়ী আইডি কার্ডটি প্রেম করে কিংবা ডাউনলোড করে সংগ্রহ করে রাখুন। অর্থাৎ এটি একটি আপনার অনলাইন ব্যবহৃত একটি আইডি কার্ড।

অর্থাৎ এটি হচ্ছে একটি আপনার অনলাইন নেশনাল আইডি কার্ড তাছাড়া যেটাতে আপনি একটি অস্থায়ী ন্যাশনাল আইডি কার্ড বলে সম্বোধন করতে পারেন। আপনাকে ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা নির্বাচন কার্যালয় থেকে যেয়ে স্মার্ট কার্ড কিংবা এনআইডি কার্ড কি পাঠানো হবে সেটাই হচ্ছে আপনার দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহৃত আইডি কার্ড।

বাংলাদেশ জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর অনুসন্ধান করার নিয়ম।

এখন আপনি খুব সহজেই অনলাইন থেকে আপনার ভোটার আইডি কার্ড কিংবা জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর দেখতে পাবেন খুব সহজেই। তার জন্য আপনাকে যে সব বিষয় গুলো ফলো করতে হবে সেগুলো নিম্নে দেওয়া হল।

সর্বপ্রথম কোন একটা ব্রাউজার ওপেন করার পর আপনার মোবাইল ফোন ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার থেকে অ্যাক্সেস করতে হবে nidw.gov.bd এই ওয়েবসাইটটিতে।

এই ওয়েবসাইটটিতে অ্যাক্সিস করার পর আপনি দুইটি অপশন দেখতে পাবেন একটা হচ্ছে "এনআইডি কার্ড" অপরটি হচ্ছে "ফর্ম"

আপনি যখন কোন একটা এনআইডি কার্ডের জন্য নতুন ভাবে আবেদন করবেন তখন আপনাকে একটা নাম্বার দেওয়া হবে। আর সেই কাঙ্খিত নাম্বারটি দিয়ে আপনার আইডি কার্ড সার্চ করলেই খুব সহজেই দেখতে পাবেন আপনার এনআইডি কার্ডের নাম্বার টি কি। অর্থাৎ স্লিপ নাম্বারটি মাধ্যমে আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার পাবেন।

আরো পড়ুনঃ অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম।ট্রেনের টিকেট কাটার সময়।ট্রেনের টিকেট ফেরত দেয়ার নিয়ম।

জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার নিয়ম | জাতীয় পরিচয় পত্র pdf

আপনি যদি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইন থেকে খুব সহজেই ডাউনলোড করতে চান তাহলে আর্টিকেলটি পড়ে এখনি জেনে নিন। আপনার এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য nidw.gov.bd/forms এই ওয়েব সাইটটি ভিজিট করুন। এই ওয়েবসাইট টি ভিজিট করার পর এখানে যাবতীয় তথ্য দেওয়ার পর আপনার আইডি কার্ডটি খুব সহজেই ডাউনলোড করে নিতে পারেন। অর্থাৎ এই ওয়েবসাইটটিতে একটা ডাউনলোড অপশন রয়েছে সেখান থেকে আপনার কাংখিত ন্যাশনাল আইডি কার্ডটি পিডিএফ আকারে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

বাংলাদেশে স্মার্ট কার্ড পাওয়ার উপায় | জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান

আমরা সকলেই জানি আমাদের বাংলাদেশের মধ্যে যে আইডি কার্ডে রয়েছে সেটা এখন ও রূপান্তর করে এ স্মার্ট কার্ড এ রুপান্তরিত করা হয়েছে। আর এই স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে আমরা আমাদের দৈনন্দিন যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করতে পারি আধুনিকতার সাথে। সেজন্য আমরাও যাতে স্মার্ট হতে পারি তার জন্য আমাদেরকে আইডি কার্ডটি পরিবর্তন করে স্মার্ট কার্ড এ রূপান্তরিত করা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এরপর থেকে যারা নতুন একটি আইডি কার্ড করার জন্য আবেদন করবেন তারা সরাসরি সরকারের কাছ থেকেই অবতার নির্বাচন কার্যালয় কিংবা পরিষদ থেকে স্মার্ট কার্ড পেয়ে যাবেন।

আমাদের জীবনে যা যা প্রয়োজন তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে স্মার্ট কার্ড কেননা আমরা যখন কোন একটা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে চাই তখন অবশ্যই আইডি কার্ড কিংবা স্মার্ট কার্ড এর প্রয়োজন পড়ে। তাছাড়া আপনি যখন কোন একটা বিদেশে ভ্রমণ কিংবা ভিসার জন্য আবেদন করবেন তখন আপনাকে অবশ্যই আইডি কার্ড কিংবা স্মার্ট কার্ড এর প্রয়োজন হবে। তাছাড়া আপনি যদি কোন একটা আন্তর্জাতিক বিষয় সম্পর্কে কাজ করতে আগ্রহী হয়ে থাকেন কিংবা করেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে স্মার্ট কার্ডের প্রয়োজন পড়বে। আপনি যদি একটি স্মার্ট কার্ড পেতে চান তাহলে আপনার ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা নির্বাচন অফিস থেকে স্মার্ট কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন কিংবা আপনি খুব সহজেই ঘরে বসেই অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

আপনি যদি নির্বাচন অফিস কিংবা ইউনিয়ন পরিষদ সরাসরি স্মার্ট কার্ডের জন্য আবেদন করেন তাহলে সেখানে একটা আপনাকে ফরম পূরণ করতে হবে। ফরম পূরণ করার পর সেটিং আপনাকে একজন দায়িত্বশীল ব্যক্তি কে জমা দিতে হবে। আপনার স্মার্ট কার্ড যখন পরিপূর্ণ হয়ে যাবে তখন খুব দ্রুত আপনাকে একটি রেজিস্ট্রেশন নম্বর দেওয়ার মাধ্যমে অবগত করার চেষ্টা করা হবে যে আপনার আইডি কার্ড তৈরি হয়ে গেছে।

তাছাড়া আপনি খুব সহজেই অনলাইনের মধ্যে স্মার্ট কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন কিংবা সংগ্রহ করতে পারেন। তো আপনি যদি অনলাইন থেকে সংগ্রহ করতে চান সেই ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে কোন একটা ব্রাউজার এ গিয়ে ভিজিট করতে হবে nidw.gov.bd/home । এই ওয়েবসাইটে যাওয়ার পর আপনাকে আপনার যাবতীয় তথ্য সাবমিট করার পর সেখান থেকে আপনি পিডিএফ আকারে ডাউনলোড করে নিবেন। তারপর আপনি ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা নির্বাচন অবশ্যই বলবেন যে আপনার এ স্মার্ট কার্ডের জন্য মোবাইল ফোন, কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করা হয়েছে। যখন আপনার কাজ টি কমপ্লিট হয়ে যাবে তখন খুব দ্রুত আপনারা স্মার্ট কার্ড টি দিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবে।

এই দুটি পদ্ধতিতেই আপনি আপনার স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন অর্থাৎ অফলাইন এবং অনলাইন এই দুই পদ্ধতিতে। অবশেষে একটা কথা বলে রাখা ভালো যে অনেকে মনে করেন এ স্মার্ট কার্ড করার জন্য হয়তো টাকার প্রয়োজন পড়তে পারে। আমি বলব এখানে আপনাকে কোন প্রকার টাকা খরচ করতে হবে না। অর্থাৎ বিনামূল্যেই আপনি আপনার স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করে নিতে পারবেন খুব সহজে। তবে আপনি যদি কোন প্রকারের দালাল নিয়ে কাজ করে হয়তো তাকে টাকা দেওয়ার প্রয়োজন পড়তে পারে।

জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড | জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান

আপনি কি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র এখনো হাতে পাননি কিংবা হাতে পেয়েছেন হারিয়ে গেছে আর কোন চিন্তা নেই। কেননা আপনি খুব সহজেই জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করে নিতে পারবেন অনলাইন থেকেই। তার জন্য অবশ্যই আপনাকে নিচে দেওয়া স্টেপ গুলো ভালভাবে বল করতে হবে। অবশেষে ক্ষেত্রে আপনাকে একটি সর্বপ্রথম একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে যদি অ্যাকাউন্ট না থাকে যেগুলো আপনি বিস্তারিত ভাবে জানতে পারবেন যদি শেষ পর্যন্ত পড়েন।

আপনি যদি আপনার এনআইডি কার্ড টি ডাউনলোড করতে চান অনলাইন থেকেই তাহলে আপনাকে সর্বপ্রথম মোবাইল কিংবা ল্যাপটপ,কম্পিউটার থেকে কোন একটা ব্রাউজার এ গিয়ে ভিজিট করুন https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/

তারপর আপনার সামনে একটা নতুন পেজ ওপেন হবে যেখানে "রেজিস্টার" নামে একটি বাটন পাবেন যদি আপনার অ্যাকাউন্ট আগে থেকেই না থেকে থাকে তাহলে "রেজিস্টার" বাটনে ক্লিক করুন। যদি আপনার অ্যাকাউন্ট আগে থেকেই ক্রিয়েট করা থাকে সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার আগের ইউসার নেম কিংবা মোবাইল নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে নিতে পারবে (লগ ইন করা থাকে লগ ইন করতে হবে)।

একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন এ আসার পর আপনার সামনে যে পেজটি ওপেন হবে সেখানে আপনার এনআইডি কার্ড নাম্বার/স্লিপ নাম্বার/স্মার্ট কার্ড নাম্বার এখান থেকে আপনাকে কোন একটা টাইপ করতে হবে। এবং আপনার জন্ম তারিখটি সঠিকভাবে বসানোর পর নিচের দেওয়া ক্যাপচা পুরন করুন। এবং সর্বশেষে সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন।

সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পর আপনাকে আরেকটা নতুন পেজে নিয়ে যাবে যেখানে আপনার বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা ইত্যাদি বসাতে হবে। মূল কথা হচ্ছে এখানে যেসব বিষয় গুলো আপনাকে চাওয়া হবে সেসব বিষয় গুলো ফিলাপ করে ফেলুন। সব গুলো ঠিকঠাক ভাবে ফিলাপ করার পর "পরবর্তী" বাটনে ক্লিক করুন।

পরবর্তী বাটনে ক্লিক করার পর আপনাকে আরেকটা পেজে নিয়ে যাওয়া হবে যেখানে মূলত আপনার একটি সচ্ছল মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। এই নাম্বার দিয়ে আপনার একাউন্ট ভেরিফিকেশন করা হবে এবং পরবর্তীতে লগইন করার সময় এই নাম্বারটি প্রয়োজন হতে পারে। তো আপনি একটি আপনার সচল মোবাইল নাম্বার টাইপ করুন যেটাতে একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠানো হবে। ভেরিফিকেশন কোড টি সেই কালি বক্সে টাইপ করার পর "বাহাল" বাটনে ক্লিক করুন। তবে হ্যাঁ একটা কথা মনে রাখবেন ভেরিফিকেশন কোড পাঠানোর জন্য আপনার থেকে দুটি জিনিস জিজ্ঞেস করা হতে পারে (কিসের মাধ্যমে আপনাকে কোড পাঠাবে) (১) কলের মাধ্যমে (৩) এসএমএসের মাধ্যমে। তো যদি এই দুটি অপশন চলে আসে তাহলে আপনাকে কোন একটা বেছে নিতে হবে।

এখন আপনাকে একটি অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করতে হবে ফেস ভেরিফিকেশন করার জন্য অ্যাপ্লিকেশনের নাম হচ্ছে এনআইডি ওয়ালেট (NID wallet) এই অ্যাপ্লিকেশনটি আপনি প্লে স্টোরে সার্চ দিলেই সর্বপ্রথম পেয়ে যাবেন।

আরো পড়ুনঃ

এবং সর্বশেষ আপনি কিউআর কোডটি স্ক্যান করার পর আপনার ফেস ভেরিফিকেশন করে ফেলুন। অ্যাপ থেকে ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনাকে সংক্রিয়ভাবে ব্রাউজার এ নিয়ে যাবে। সেখান থেকে আপনি আপনার একাউন্টের এনআইডি ড্যাশবোর্ড ওপেন হয়ে যাবে। সেখান থেকেই ডাউনলোড অপশনে ক্লিক করার পর আপনার এন আইডি টি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করা সম্পর্কে আশা করি আপনি বিস্তারিতভাবে জানতে পেরেছেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url