টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২৩ বাংলাদেশ

কে না চাই অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করতে? এই প্রযুক্তির দুনিয়ায় যখন প্রতিটা ব্যক্তির হাতে স্মার্টফোন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী তাদের মধ্যে সবাই চায় নিজের ঘরে বসেই স্বাবলম্বী হতে।

তাই আপনাদের মধ্যে যারা অনলাইনে ঘরে বসে ইনকাম করতে চাচ্ছেন অর্থাৎ এমন অ্যাপস এর নাম খুঁজতেছেন যেটা দিয়ে কিনা আপনি খুব সহজেই ঘরে বসে অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন।

তো আপনিও যদি তাদের মধ্যে একজন হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আর্টিকেলটি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে ভুলবেন না। যে সমস্ত মানুষ নিজের ঘরে বসেই স্বাবলম্বী হতে চায় তাদের জন্য একটা কার্যকরী উপায় হচ্ছে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে ঘরে বসে আয় করা।

টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২৩ বাংলাদেশ
টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২২ বাংলাদেশ

তাই আমাদের মধ্যে যারা অযথা টাইম পাস করেন মোবাইলের মধ্যে গেম খেলে ফেসবুক ইত্যাদিতে। বিশেষ করে তাদের উদ্দেশ্যে বলছি আপনারা অযোধ্যা টাইম পাস না করে মোবাইল অ্যাপস এর মাধ্যমে বিভিন্ন কাজ করে অর্থ উপার্জন করুন নিজের পায়ে নিজে দাঁড়ান।

আরো পড়ুনঃ আজওয়া খেজুরের দাম এবং অনলাইন ক্রয় করার নিয়ম ইত্যাদি

টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২৩ বাংলাদেশ

আবার অনেকেই মনে করেন হয়তো আমি কি অনলাইনে স্বাবলম্বী অর্থাৎ অর্থ উপার্জন করতে পারব কিনা এই বিষয় নিয়ে। তাই আমি সেসব প্রশ্নের উত্তরে বলি আমার পরিচিত অনেক মানুষ এমন আছে যারা কিনা প্রতিমাসে শুধুমাত্র মোবাইলে সময় ব্যয় করে 50 হাজারের উপরে অর্থ উপার্জন করে।

আশা করি আপনি যদি নিয়মিত কাজ করেন মোবাইলের মধ্যে তাহলে ইনশাআল্লাহ আপনার আর্থিক সমস্যা দূর হয়ে যাবে এবং আপনিতো স্বাবলম্বী হতে পারবেন।

তাছাড়া কত না সহজ মোবাইল থেকেও বেশি অর্থ উপার্জন করা। মূলত মোবাইল দিয়ে অর্থ উপার্জন করার অর্থ হচ্ছে ফেইসবুক ইত্যাদি দেখা।

আপনি ফেসবুক ইত্যাদিতে যেমনভাবে সময় নষ্ট করতেছেন সেটা তো কোন কাজে আসতেছে না কিন্তু আপনি যদি সঠিক জায়গায় গিয়ে সঠিক সময় সঠিক স্কিল ডেভেলপ করে কাজ করেন আশা করি আপনিও একজন ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন।

তাই বিশেষ করে আমাদের দেশের আর্থিক পরিস্থিতির বিষয়ে পরিকল্পনা করে আপনিও এখন থেকে মোবাইলে ইনকাম করে স্টার্ট করে দিন। কেননা দেশ দেউলিয়া হলে আপনি যেন দেউলিয়া না হন।

কিছুদিন ধরে একটা বিষয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের মধ্যে বেশি ভাইরাল। সেটা হচ্ছে অনেকেই দেখা যায় আমাদের বন্ধুবান্ধবের মধ্যে টিক টক অ্যাপস রেফার করে।

যার কারণে আমি আমার বন্ধুর রেফারকৃত লিংকের মাধ্যমে যদি টিক টক অ্যাপস ডাউনলোড করে তার রেফার কোডটা বসিয়ে দিই তাহলে তিনি কিছুটা থাকা হবে কিংবা অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। তাই অনেকেই সেই টিকটক শেয়ার করে থাকে।

তবে আজকের এই আর্টিকেলের মূল বিষয়বস্তু টিক টক অ্যাপ সম্পর্কে নয়। বরং বিভিন্ন ধরনের আর কয়েকটি এর সম্পর্কে যেকোনো থেকেও আপনি অল্প পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

See also  গ্রামীণফোন আনলিমিটেড ইন্টারনেট প্যাকেজ

তবে বিভিন্ন এপস এর মধ্যে প্রতারণার ফাঁদ রয়েছে। যেমন তারা আপনাকে যে কাজটি করিয়ে নেবে কিন্তু আপনার কাজের লভ্যাংশটা তারা বুঝে নিবে এবং আপনাকে কোন প্রকার বেনিফিট তারা দিবে না।

বরং আপনাকে কাজ করি তারা যত টাকা উপার্জন করেছে সেগুলো তারা খেয়ে ফেলবে। ‌‌ তাই অবশ্যই কোন একটা অ্যাপস কিংবা অন্য যেকোনো প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করার আগে অবশ্যই বুঝেশুনে কাজ করবেন।

অবশ্যই তারা কি পরিমান ট্রাস্টেড সেটা যাচাই-বাছাই করতে হবে। এটা দেখার চেষ্টা করবেন যে আপনি যে কোম্পানির হয়ে কাজ করতে চাচ্ছেন সে কোম্পানির আগে কর্মরত কেউ ছিল কিনা।

অর্থাৎ এমন লোকের পরিচয় হওয়ার চেষ্টা করবেন যারা কিনা সেই অ্যাপস কিংবা সেই প্রতিষ্ঠানে কাজ করেছিল। সুতরাং তাদের থেকে জিজ্ঞেস করে নিবেন যে আপনি যদি কাজ করেন তাহলে কেমন হবে আমি কি টাকা উইথড্র করতে পারব কিনা।

আরো পড়ুনঃ চিকন হওয়ার উপায় কি? দ্রুত চিকন হওয়ার উপায় | চিকন হওয়ার ঔষধ

তাই আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব টাকা ইনকাম করার অ্যাপ 2022 বাংলাদেশ সম্পর্কে। অর্থাৎ এমন কিছু অ্যাপস এর সম্পর্কে আপনার কি ধারণা দিব যে এগুলো থেকে আপনারা কিছু পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

তবে আপনাদেরকে একটা কথা আগে থেকে বলে নিয়েছে অবশ্যই আমি যে অ্যাপস গুলো আপনাদের কি শেয়ার করব সেগুলোতে কাজ করার আগেও আপনারা বুঝে শুনে কাজ করবেন।

কেননা আমি যেহেতু অ্যাপস গুলোর মধ্যে কাজ করেনি তাই আমি তারা কতটুকু ট্রাস্টেড সেটা জানিনা। বরং আমি আপনাদের সাথে অন্য কোন ওয়েবসাইট থেকে তথ্য কালেকশন করার পর আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

আরো পড়ুনঃ স্কিটো সিমের নাম্বার কেমন | স্কিটো সিমের নাম্বার চেক

১/ মেক মানি/make money | টাকা ইনকাম করার ওয়েবসাইট 2022

আপনারা যারা অ্যাপের মাধ্যমে স্বল্প পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে চান তারা মেক মানি এই অ্যাপসটা থেকে ইনকাম করতে পারেন অর্থাৎ এটাতে কাজ করতে পারেন।

আপনি এই অ্যাপসটা ডাউনলোড করার পরে এখানে কিছু পরিমান কাজ আপনাকে করতে হবে। এই অ্যাপের মধ্যে বিশেষ করে যে কাজটি উল্লেখযোগ্য সেটা হচ্ছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট সার্ভে করা।

আসমি এখানে যত বেশি পরিমাণ ওয়েবসাইট সার্ভে করতে পারবেন তত উপার্জন বেশি করতে পারবেন। আপনি কাজটি কমপ্লিট করার পরে আপনি এই অ্যাপের মধ্যে যে একাউন্টি করেছিলেন সেখানে আপনার কাজের বিনিময় দেওয়া হবে অর্থাৎ টাকা যোগ করা হবে।

এখানে আপনারা বিভিন্ন রকম লেখালেখি করতে পারবেন। তো আশা করি একটু হলে ধারণা পেয়েছেন মেক মানি সম্পর্কে। তাই আপনি যদি কিছু অল্প পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে চান সে ক্ষেত্রে এই অ্যাপসটিতে যোগ দিতে পারেন।

তবে অবশ্যই অনলাইন কিংবা ইউটিউব এর মধ্যে আগে ঘাটাঘাটি করে দেখবেন যে এই অ্যাপস কতটা ট্রাস্টেড কিংবা বিশ্বস্ত। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

আরো পড়ুনঃ ঈদুল আযহা নামাজের নিয়ম | ঈদুল আযহার নামাজের নিয়ত

See also  how to add links to tvpayz channel (2024)

২/ picxele/পিক্সেল | টাকা ইনকাম করার অ্যাপ বাংলাদেশ

আপনি কি ছবি তুলতে পছন্দ করেন? এবং আপনি কি সেই সাথে ইন্টারনেট থেকে অর্থ উপার্জন করতে চান। তাহলে আপনার জন্য সেই সুযোগটা নিয়ে এসেছে পিক্সেল।

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন ছবি তুলে সখের বসে। কিন্তু সে জানে যে ছবি তোলার মাধ্যমে অনলাইনে অর্থ উপার্জন করা যায়। আপনি যদি একজন ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার এই সুযোগটা হারাবেন না।

কেননা আপনি প্রতিটা ছবি তুলবেন আনন্দের সাথে জোকস এর সাথে কিন্তু সেই সাথে যে আপনি সেই ছবিগুলো অনলাইনে বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন এটা তো একটা দারুণ ব্যাপার।

তাই আপনি যদি ভালো ছবি তুলতে পারেন কিংবা নরমাল ভাবে ছবি তুলতে জানেন এবং কোন একটা বড় জায়গায় চান্স না পান তাহলে এই অ্যাপসটা আপনার জন্য।

এখানে আপনার কাজ হচ্ছে বিভিন্ন রকম মজার মজার ছবি তোলা এবং সেগুলো এই অ্যাপস এর মধ্যে আপলোড করা। মূলত তারা আপনাকে যে অর্থ প্রদান করবে সেটা আপনার আপলোড করা ছবির উপর ভিউ এর ভিত্তিতে।

অর্থাৎ আপনার আপলোডকৃত ছবিগুলো যত বেশি পপুলার হবে ততো আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন এবং বেনিফিট পাবেন। তাছাড়া এই অ্যাপস এর মধ্যে আরও বিভিন্ন প্রকার সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। যেগুলো কিনা আপনারাই এপে প্রবেশ করার পর কিংবা ডাউনলোড করার পর জানতে পারবেন।

তাছাড়া তাদের একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট রয়েছে যেটা কিনা আপনি পিক্সেল লিখে গুগলে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। তার আগে অবশ্যই অ্যাপস সম্পর্কে যাচাই বাছাই করবেন।

আরো পড়ুনঃ কোরবানির ঈদ কবে 2022 | ঈদুল আযহা ২০২২ কত তারিখে

৩/ মেশো/meesho | টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২১ বাংলাদেশ

আপনার যদি অনলাইনে অর্থ উপার্জন করার বেসিক ধারণা টুকু থাকে তাহলে অবশ্যই এফিলিয়েট মার্কেটিং এর কথা শুনবেন। কেননা এফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে অনলাইন ইনকাম করার জগতের একটা ইনকামের সোর্স।

অনেক মানুষ এমন আছে যারা কিনা শুধুমাত্র এফিলিয়েট মার্কেটিং করে প্রতি মাসে এক থেকে চার লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করে। এখনই যেহেতু আপনি নতুন তাই আপনিও যদি একজন এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে চান।

অর্থাৎ আপনি যদি একজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে চান এবং আপনি যদি এখন থেকে শুরু করতে চান আগে কখনো অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেননি তাহলে এই অ্যাপসটি দিয়ে শুরু করতে পারেন।

কেননা এই অ্যাপসটি ডাউনলোড করার পরে আপনি সেখানে বিভিন্ন প্রকার প্রডাক্টস পেয়ে যাবেন। আপনি যদি কোন একটা ব্যক্তিকে সেই প্রোডাক্টগুলো ক্রয় করে দিতে পারেন। তাহলে সেখান থেকে আপনি বেনিফিট পাবেন।

অর্থাৎ আপনার কারণে যদি কোন এক ব্যক্তি তাদের কোম্পানি থেকে কোন একটা প্রোডাক্ট ক্রয় করে তাহলে আপনাকে একটা তারা কমিশন প্রদান করবে। এখানে বিভিন্ন প্রকার কমিশন রয়েছে যেমন এমন অনেক কোম্পানি আছে যারা কিনা 30 শতাংশ পর্যন্ত কমিশন দিয়ে থাকে।

তাই আপনার যদি এই সামান্যটুকু এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে জ্ঞান থাকে তাহলে এই অ্যাপসটা ডাউনলোড করে সেখান থেকে কিছুটা বেনিফিট লাভ করতে পারেন। তবে অবশ্যই অ্যাপসটা ডাউনলোড করার আগে যাচাই বাছাই করবেন। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

See also  রবি ১০০ টাকায় ১০ জিবি

আরো পড়ুনঃ এসএসসি রেজাল্ট চেক | SSC result দেখার নিয়ম

৪/ বিকাশে রেফার/bkash refer | মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম 2022

অনলাইন থেকে ইন্টারনেট ক্রয় করার অর্থাৎ এম বিক্রয় করা কিংবা মিনিট ক্রয় করা অর্থাৎ প্রতি মাসের সামান্য সামান্য যেগুলো আছে সেগুলো মেটাতে অনেক ছাত্র ছাত্রীরা বিকাশ রেফার এই অপশনটা চয়েজ করে থাকে।

সাধারণত আমরা সকলেই জানি যখন কোন একটা ব্যক্তি বিকাশ একাউন্ট খুলে তাহলে বিকাশের অফার অনুযায়ী কিছুটা টাকা বিকাশ একাউন্টের মালিকের কাছে দেওয়া হয়।

এখানে আরেকটি সুবিধা হচ্ছে বিকাশ রেফার অর্থাৎ আপনি যদি কাউকে নতুন একটা বিকাশ গ্রাহককে বিকাশের অফিশিয়ালি অ্যাপস যেটা আছে সেটা ডাউনলোড করে লগইন করে দিতে পারেন তাহলে সেখান থেকে আপনি কিছুটা বেনিফিট পাবেন।

তার জন্য অবশ্যই আপনার একটা বিকাশ একাউন্ট থাকতে হবে অর্থাৎ যেটাতে আপনি কমিশনটা পাবেন। এবং আপনার বিকাশ একাউন্টি যখন তাদের অফিশিয়ালি অ্যাপস এর মধ্যে লগইন করার পর সেখান থেকে রেফার লিংক টা নিয়ে কোন একটা নতুন গ্রাহককে ডাউনলোড করে দিবেন তখন আপনি সেখান থেকে 120 টাকা থেকে শুরু করে 150 টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন।

তবে আমার জানা মতে এই অফারটা কিছুদিনের জন্য বন্ধ ছিল। কিন্তু আশাকরি এখন আবার করে দেওয়া হয়েছে। তাই আপনি যদি নিজের সামান্য সামান্য খরচ নিজেই চালাতে চান তাহলে এই অফারটা অবলম্বন করতে পারে।

বিস্তারিত ভাবে জানার জন্য ইউটিউবে সার্চ করতে পারেন। সেখানে আপনার ভিডিও সহকারে কখন কিভাবে কোথায় গিয়ে রেফার করতে হয় ডাউনলোড করাতে হয় সবগুলোই পেয়ে যাবেন। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

৫/ নগদ/nogod | ফ্রি টাকা ইনকাম

কমবেশি আমরা সকলেই জানি নগদ এটি হচ্ছে বাংলাদেশের ডাক বিভাগের একটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। এটি চালু হয়েছে বেশিদিন হচ্ছে না তাই নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর গ্রাহক তেমন বেশি না।

তাই আপনি এখানে একটা আয় করার সুযোগ পেয়ে যাচ্ছেন। অর্থাৎ আপনি যদি নগদ কাস্টমার কেয়ারের সাথে কথা বলে এজেন্ট হয়ে যেতে পারেন তাহলে আপনি ব্যবহার করেও অনেক অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

আপনি যদি একজন নগদ কাস্টমার প্রতিনিধির সাথে কথা বলে এজেন্ট সিম টা নিয়ে নিতে পারেন কিংবা এজেন্ট হয়ে যেতে পারেন তাহলে আপনি সেখান থেকে কিছুটা বেনিফিট অর্জন করতে পারেন।

অর্থাৎ আপনি তাদেরকে বলে এজেন্ট হওয়ার পর সাধারণ গ্রাহক যারা আছে তাদের একাউন্টে টাকা লোড করে দেওয়া, তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা ক্যাশ আউট করা, অন্য কোন নতুন নগদ একাউন্ট খুলে দেওয়া ইত্যাদি এসব করে দেওয়ার কারণে আপনি নগদ কোম্পানি থেকে কিছু অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

আমার দেখা এমন অনেক লোক আছে যারা কিনা এই কাজটি করে তাদের পরিবারের সাথে ভালো সময় কাটাচ্ছে। অর্থাৎ পরিবার পরিচালনা করতেছে সুখী সংসার করতেছে। আপনি বিস্তারিত ভাবে জানার জন্য কোন একটা নগদ কাস্টমার প্রতিনিধির সাথে কথা বলতে পারেন।

বিঃদ্রঃ আজকের এই আর্টিকেল কিংবা আমার ওয়েবসাইটের কোন আর্টিকেলে যদি কোন প্রকার উপর দেখতে পান তাহলে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে কিংবা আমার সাথে যোগাযোগ করার মাধ্যমে জানিয়ে দিবেন।

উপসংহারঃ আজকের এই আর্টিকেল থেকে যদি আপনি একটু হলেও উপকৃত হতে পারেন তাহলে আপনার বন্ধু-বান্ধব কিংবা আত্মীয়স্বজনের কাছে শেয়ার করতে ভুলবেন না। কেননা হয়তো আপনার একটি শেয়ারই কারণে অনেক অজানা ব্যক্তি টাকা ইনকাম করার অ্যাপ ২০২২ বাংলাদেশ বিষয় সম্পর্কে জেনে যাবে। ধন্যবাদ।