Advertise

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022। jonmo nibondhon online korar niom 2022

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022। আপনার হাতে লেখা জন্ম সনদ চিকি এখন অনলাইন ডাটাবেজে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না তাহলে আর চিন্তার কোন কারণ নেই। কেননা আজকেরে আর্টিকেল আমি বিস্তারিত শেয়ার করব জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম সম্পর্কে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত। তাই এখনই আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়া শুরু করে দিন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022।jonmo nibondhon online korar niom 2022


আরো পড়ুনঃ জন্ম নিবন্ধন যাচাই। জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড


বলতে গেলে এখন আপনার জন্ম নিবন্ধন টি যদি অনলাইনে না থাকে বা ডিজিটাল হয়ে না থাকে তাহলে এটা আর কোন ধরনের কাজে ব্যবহার করা যাচ্ছে না। কেননা প্রত্যেকেই এখন খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে চেক করতে পারে। তাই এখন যদি আপনার জন্ম সনদ টি কোন একটা কাজে ব্যবহার করতে চান সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার জন্ম নিবন্ধন তারা চেক করে নিবে। সহজ ভাষায় বলতে গেলে জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল কিংবা অনলাইন থাকতে হবে কোন কাজে ব্যবহার করার জন্য।


জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে না থাকলে করণীয় কি।


সর্বপ্রথম আপনাকে খুঁজে বের করতে হবে আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে আছে কিনা যদি না থাকে অবশ্যই আপনাকে আগে খুঁজে বের করতে হবে কী কারণে আপনার জন্ম সনদ অনলাইন ডাটাবেজে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সত্যিই যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে খুঁজে পাওয়া না যায় সে ক্ষেত্রে অবশ্যই নতুন একটি করার জন্য আবেদন করতে হবে।


কি কারনে আপনার জন্ম নিবন্ধনটি অনলাইনে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।


আগের কার সময়ে আমাদের জন্ম নিবন্ধন গুলো সাধারণত পৌরসভা কিংবা ইউনিয়ন পরিষদে রেজিস্টার খাতাতে লেখা থাকতে। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার পরবর্তী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনলাইনে করার প্রয়োজন মনে করে। যার কারণে হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন গুলো আস্তে আস্তে অনলাইন করা শুরু করে দেই।


সাধারণত আগের কার সময় নিয়ে যে হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন গুলো ছিল সেগুলো মেনুয়ালি ভাবে অনলাইনে করার প্রক্রিয়াটি চালু করা হয়েছিল। হতে পারে আপনার জন্ম নিবন্ধন ফি ভুলবশত অনলাইনে তোলা হয়নি।


হতে পারে এমন ভাবেই আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে যোগ করা থেকে বিরত হয়ে আছে। অর্থাৎ আপনার জন্ম নিবন্ধন ফি থাকার সত্বেও অনলাইনে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না শুধুমাত্র ভুলের কারণে।


অনলাইনে আপনার জন্ম নিবন্ধন খুঁজে না পাওয়া আরেকটি কারণ হতে পারে সেটি হচ্ছে হয়তো আপনার কাছে আপনার জন্ম নিবন্ধনের যে রেজিস্ট্রেশন নাম্বারটা রয়েছে সেটি ভূল। যার কারণেই অনলাইনে চেক করার সময় আপনার রেজিস্ট্রেশন নাম্বার ভুল থাকার কারণে সঠিক তথ্যটি আপনি পাচ্ছেন না।


জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022।


সর্বপ্রথম আপনাকে চেক করতে হবে আপনার হাতে যে রেজিস্ট্রেশন নাম্বারটা রয়েছে অর্থাৎ জন্ম নিবন্ধন নম্বর যেটাকে বলা হয়ে থাকে। সাধারণত এই রেজিস্ট্রেশন নাম্বার টি 17 ডিজিটের হয়ে থাকে। তাই আগে আপনাকে চেক করে নিতে হবে আপনার নাম্বারটি ও 17 ডিজিটের কিনা এবং সেই 17 ডিজিটের শুরুর চারটি অক্ষর আপনার জন্ম সাল কিনা। যদি এই সমস্ত সব তথ্য ঠিক থাকার পরেও আপনার জন্ম নিবন্ধন ফি অনলাইন ডাটাবেজে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই আরেকটি জন্ম নিবন্ধনের জন্য নতুন ভাবে আবেদন করতে হবে।


আরেকটি কথা হচ্ছে আপনি যদি নতুন একটি জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করতে চান এবং আপনার জন্ম সাল যদি 1 তারিখ 1 মাস 2001 সালের পর হয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার আরেকটি নতুন ভাবে জন্ম নিবন্ধন করার জন্য আপনার মা বাবার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে থাকতে হবে বা ডিজিটাল থাকতে হবে।


কেননা আপনার জন্ম নিবন্ধনে আপনার মা বাবার নাম ইত্যাদি যোগ করার ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার মা বাবার জন্ম নিবন্ধন অনুযায়ী আপনার জন্ম নিবন্ধনে এড করা হবে সংক্রিয় ভাবে।


তাই অবশ্যই আপনি সর্বপ্রথম জেনে নিন আপনার নতুনভাবে জন্ম নিবন্ধন করার আগে আপনার মা বাবার জন্ম সনদ অনলাইনে আছে কিনা। আপনার জন্ম সনদ অনলাইনে আছে কিনা চেক করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।


আর আপনার জন্মসাল যদি 1 তারিখ 1 মাস 2001 সালের আগে হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আপনার মা বাবার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে থাকা প্রয়োজন নয়। অর্থাৎ আপনার জন্ম নিবন্ধনের আবেদন করার সময় শুধুমাত্র আপনার মা বাবার নাম ইত্যাদি লিখে দিলেই হবে।


জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম 2022 এই সম্পর্কে লেখা আর্টিকেলটি যদি আপনার ভাল লাগে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার আত্মীয়-স্বজন কিংবা বন্ধু-বান্ধবদের শেয়ার করতে ভুলবেন না। কেননা হয়তো আপনার একটা শেয়ার এর কারণে তারা অনেক কিছুই অজানা বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবে। আগামী আরেকটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হব ইনশাআল্লাহ।

আরো পড়ুনঃ কিভাবে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করা যায়।জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার নিয়ম।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url